মাশরাফি থেকে সকলকে শিক্ষা নেওয়া দরকার, কিভাবে জীবন বাজি রেখে খেলা যায়: ইমরান খান

মাশরাফি বলেই ব্যাটিং ক্রিজে মাত্র ২২২ রান করেও শেষ বল পর্যন্ত ম্যাচ গড়িয়েছে। ভারতের ব্যাটিং লাইন কে মেধা ও বুদ্ধিদীপ্ত দিয়ে আটকিয়ে রেখেছিলেন মাশরাফি। এক কথায় সে অসাধারণ অধিনায়ক।

বিতর্কিত আউট লিটন দাস না হলে বাংলাদেশের স্কোর ২৫০ হত সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশের জয়ের সম্ভাবনা বেশি ছিল। বেনিফিট অফ ডাউট এর নিয়ম হচ্ছে ব্যাটসম্যানের পক্ষে যায় কিন্তু তার ব্যতিক্রম দেখলাম।

এশিয়া কাপের অঘোষিত সেমি ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ। আর সেই ম্যাচে পাকিস্তানকে ৩৭ রানে হারিয়ে তৃতীয়বারের মত এশিয়া কাপের ফাইনালে উঠে যায় বাংলাদেশ। পাকিস্তানের এমন হারে হতাশ হয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক এবং বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

তবে বাংলাদেশের প্রশংসা করতে মোটেও ভুল করেননি তিনি। বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানিয়ে তিনি বলেন, ‘অভিনন্দন বাংলাদেশ। এত সুন্দর ভাবে বাংলাদেশ এগিয়ে গেছে যা দেখে আমি সত্যিই বিস্মিত।

তিনি বলেন এই বাংলাদেশ নিয়ে ভবিষ্যত বাণী করা যায় সামনে তাদের জন্য মহা আনন্দের দিন আছে।’ এছাড়াও টাইগার অধিনায়ক মাশরাফির প্রশংসা করেছেন তিনি। তিনি বলেন, ‘মাশরাফি থেকে সকলকে শিক্ষা নেওয়া দরকার কিভাবে দলের প্রয়োজনে নিজের জীবন বাজি রেখে খেলে যায়।

গতকাল তার এই অসাধারন পারফরম্যান্সই বলে দেয় এবারের এশিয়া কাপের যোগ্য দাবিদার ছিল মাশরাফি বিন মর্তুজাই।’ বিতর্কিত আউট লিটন দাস না হলে বাংলাদেশের স্কোর ২৫০ হত সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশের জয়ের সম্ভাবনা বেশি ছিল।

মাশরাফি বলেই ব্যাটিং ক্রিজে মাত্র ২২২ রান করেও শেষ বল পর্যন্ত ম্যাচ গড়িয়েছে। ভারতের ব্যাটিং লাইন কে মেধা ও বুদ্ধিদীপ্ত দিয়ে আটকিয়ে রেখেছিলেন মাশরাফি। এক কথায় সে অসাধারণ অধিনায়ক।

বিতর্কিত আউট লিটন দাস না হলে বাংলাদেশের স্কোর ২৫০ হত সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশের জয়ের সম্ভাবনা বেশি ছিল। বেনিফিট অফ ডাউট এর নিয়ম হচ্ছে ব্যাটসম্যানের পক্ষে যায় কিন্তু তার ব্যতিক্রম দেখলাম।

এশিয়া কাপের অঘোষিত সেমি ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ। আর সেই ম্যাচে পাকিস্তানকে ৩৭ রানে হারিয়ে তৃতীয়বারের মত এশিয়া কাপের ফাইনালে উঠে যায় বাংলাদেশ। পাকিস্তানের এমন হারে হতাশ হয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক এবং বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

তবে বাংলাদেশের প্রশংসা করতে মোটেও ভুল করেননি তিনি। বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানিয়ে তিনি বলেন, ‘অভিনন্দন বাংলাদেশ। এত সুন্দর ভাবে বাংলাদেশ এগিয়ে গেছে যা দেখে আমি সত্যিই বিস্মিত।

তিনি বলেন এই বাংলাদেশ নিয়ে ভবিষ্যত বাণী করা যায় সামনে তাদের জন্য মহা আনন্দের দিন আছে।’ এছাড়াও টাইগার অধিনায়ক মাশরাফির প্রশংসা করেছেন তিনি। তিনি বলেন, ‘মাশরাফি থেকে সকলকে শিক্ষা নেওয়া দরকার কিভাবে দলের প্রয়োজনে নিজের জীবন বাজি রেখে খেলে যায়।

গতকাল তার এই অসাধারন পারফরম্যান্সই বলে দেয় এবারের এশিয়া কাপের যোগ্য দাবিদার ছিল মাশরাফি বিন মর্তুজাই।’ বিতর্কিত আউট লিটন দাস না হলে বাংলাদেশের স্কোর ২৫০ হত সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশের জয়ের সম্ভাবনা বেশি ছিল।

মাশরাফি বলেই ব্যাটিং ক্রিজে মাত্র ২২২ রান করেও শেষ বল পর্যন্ত ম্যাচ গড়িয়েছে। ভারতের ব্যাটিং লাইন কে মেধা ও বুদ্ধিদীপ্ত দিয়ে আটকিয়ে রেখেছিলেন মাশরাফি। এক কথায় সে অসাধারণ অধিনায়ক।

বিতর্কিত আউট লিটন দাস না হলে বাংলাদেশের স্কোর ২৫০ হত সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশের জয়ের সম্ভাবনা বেশি ছিল। বেনিফিট অফ ডাউট এর নিয়ম হচ্ছে ব্যাটসম্যানের পক্ষে যায় কিন্তু তার ব্যতিক্রম দেখলাম।

এশিয়া কাপের অঘোষিত সেমি ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ। আর সেই ম্যাচে পাকিস্তানকে ৩৭ রানে হারিয়ে তৃতীয়বারের মত এশিয়া কাপের ফাইনালে উঠে যায় বাংলাদেশ। পাকিস্তানের এমন হারে হতাশ হয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক এবং বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

তবে বাংলাদেশের প্রশংসা করতে মোটেও ভুল করেননি তিনি। বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানিয়ে তিনি বলেন, ‘অভিনন্দন বাংলাদেশ। এত সুন্দর ভাবে বাংলাদেশ এগিয়ে গেছে যা দেখে আমি সত্যিই বিস্মিত।

তিনি বলেন এই বাংলাদেশ নিয়ে ভবিষ্যত বাণী করা যায় সামনে তাদের জন্য মহা আনন্দের দিন আছে।’ এছাড়াও টাইগার অধিনায়ক মাশরাফির প্রশংসা করেছেন তিনি। তিনি বলেন, ‘মাশরাফি থেকে সকলকে শিক্ষা নেওয়া দরকার কিভাবে দলের প্রয়োজনে নিজের জীবন বাজি রেখে খেলে যায়।

গতকাল তার এই অসাধারন পারফরম্যান্সই বলে দেয় এবারের এশিয়া কাপের যোগ্য দাবিদার ছিল মাশরাফি বিন মর্তুজাই।’ বিতর্কিত আউট লিটন দাস না হলে বাংলাদেশের স্কোর ২৫০ হত সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশের জয়ের সম্ভাবনা বেশি ছিল।

মাশরাফি বলেই ব্যাটিং ক্রিজে মাত্র ২২২ রান করেও শেষ বল পর্যন্ত ম্যাচ গড়িয়েছে। ভারতের ব্যাটিং লাইন কে মেধা ও বুদ্ধিদীপ্ত দিয়ে আটকিয়ে রেখেছিলেন মাশরাফি। এক কথায় সে অসাধারণ অধিনায়ক।

বিতর্কিত আউট লিটন দাস না হলে বাংলাদেশের স্কোর ২৫০ হত সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশের জয়ের সম্ভাবনা বেশি ছিল। বেনিফিট অফ ডাউট এর নিয়ম হচ্ছে ব্যাটসম্যানের পক্ষে যায় কিন্তু তার ব্যতিক্রম দেখলাম।

এশিয়া কাপের অঘোষিত সেমি ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ। আর সেই ম্যাচে পাকিস্তানকে ৩৭ রানে হারিয়ে তৃতীয়বারের মত এশিয়া কাপের ফাইনালে উঠে যায় বাংলাদেশ। পাকিস্তানের এমন হারে হতাশ হয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক এবং বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

তবে বাংলাদেশের প্রশংসা করতে মোটেও ভুল করেননি তিনি। বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানিয়ে তিনি বলেন, ‘অভিনন্দন বাংলাদেশ। এত সুন্দর ভাবে বাংলাদেশ এগিয়ে গেছে যা দেখে আমি সত্যিই বিস্মিত।

তিনি বলেন এই বাংলাদেশ নিয়ে ভবিষ্যত বাণী করা যায় সামনে তাদের জন্য মহা আনন্দের দিন আছে।’ এছাড়াও টাইগার অধিনায়ক মাশরাফির প্রশংসা করেছেন তিনি। তিনি বলেন, ‘মাশরাফি থেকে সকলকে শিক্ষা নেওয়া দরকার কিভাবে দলের প্রয়োজনে নিজের জীবন বাজি রেখে খেলে যায়।

গতকাল তার এই অসাধারন পারফরম্যান্সই বলে দেয় এবারের এশিয়া কাপের যোগ্য দাবিদার ছিল মাশরাফি বিন মর্তুজাই।’ বিতর্কিত আউট লিটন দাস না হলে বাংলাদেশের স্কোর ২৫০ হত সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশের জয়ের সম্ভাবনা বেশি ছিল।

Facebook Comments