এইভাবে শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রাখার চেয়ে ছেড়ে দেওয়াই ভাল ভারতকে- সাঙ্গাকারা!

গতকাল এশিয়া কাপে ভারতের বিপক্ষে আবারও আম্পায়ারের বিমাতাসুলভ আচরণের শিকার হলো বাংলাদেশ। এশিয়া কাপের ফাইনালে দুর্দান্ত খেলে যাওয়া লিটন দাসের আউটকে বিতর্কিত বলে উল্লেখ করছেন অনেকে।

রিপ্লাইয়ে দেখা গেছে, প্রথম পর্যায়ে পা ঠিক না থাকলেও ধোনি বল স্ট্যাম্পিং করার আগে নিরাপদে পা ছিল লিটন দাসের। কিন্তু সবাইকে অবাক করে থার্ড আম্পায়ার রড টাকার আউট ঘোষণা করেন।

এরপরই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠে। ধারাভাষ্যকার ও ক্রিকেট বিশ্লেষক শামীম আশরাফ চৌধুরী বলেন, আম্পায়ার অনেকগুলো এঙ্গেল থেকে দেখে কেন আউট দিলেন তা বোধগম্য নয়।

ব্যাটসম্যানের পা দাগের কয়েক সেন্টিমিটার উপর থাকলে সাধারণত তার পক্ষে সিদ্ধান্ত যায়।

এটি আসলে দুঃখজনক। শুধু ধারাভাষ্যকার না এই আউট নিয়ে সমালোচনা করেছেন বিশ্বের অনেক ক্রিকেটার। তাদেরেই একজন হলেন সাঙ্গাকারা তিনি বলেন, অভিনন্দন ভারতকে এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্ব টিকিয়ে রাখার জন্য তবে এইভাবে শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রাখার চেয়ে ছেরে দেওয়াই ভাল।

কেনোনা গতকাল আম্পায়ার বরাবরই ভারতের পক্ষ্যবাদী করেছেন আর নিয়েছেন বিতর্কিত সিদ্ধান্ত। শুধু তাই নয় খেলার শেষের দিকে দেখা যায় ক্লিন কট আউট আম্পায়ার থেকে রিভিউ এর মাধ্যমে আদায় করে নিতে হয়েছে বাংলাদেশ।

অথচ লিটনের আউট ছিল পুরো ভিত্তিহিন সেখানে লিটন কে উল্টো আউট দিয়ে দিল। আমি আমার দৃষ্টি কোন থেকে বলতে চাই এবারের আসরে হট টিম বাংলাদেশ শিরোপার দাবিদার তারাই ছিল।

অারো পড়ুন-আবারও আম্পারের কাছেই হেরে গেল বাংলাদেশ!
September 28, 2018

১৮ ওয়ানডের ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো ব্যাট তুলে ধরার সুযোগ পেলেন লিটন দাস। না, হাফসেঞ্চুরি নয়। একেবারে সেঞ্চুরিতেই ম্যাজিক ফিগার ছুঁলেন ডানহাতি এই ওপেনার। দুর্দান্ত সেঞ্চুরি তিনি হাঁকিয়েছেন সহজাত মারকুটে ভঙ্গিমাতেই।

ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরিটা মাত্র ৮৭ বলেই তুলে নিয়েছেন লিটন। তার এই দুর্দান্ত সেঞ্চুরির পরও অবশ্য দ্রুত বেশ কয়েকটি উইকেট হারিয়ে অস্বস্তিতে আছে বাংলাদেশ।

ওপেনিং জুটি ক্লিক করছিল না কিছুতেই। তামিম ইকবালের শূন্যতাটা বেশ অনুভূত হচ্ছিল এশিয়া কাপের আগের ম্যাচগুলোতে। এবার সেই শূন্যতা ঘুচল ফাইনালে। ভারতের মতো দলের বিপক্ষে।

দুবাইয়ে মেকশিপ্ট ওপেনার মেহেদী হাসান মিরাজ আর লিটন দাসের ব্যাটে রীতিমত উড়ন্ত সূচনা পেয়েছে বাংলাদেশ। উদ্বোধনী জুটিতে তারা তুলেন ১২০ রান।

মিরাজ শুধু সাপোর্ট দিয়ে যাচ্ছিলেন। লিটন খেলেছেন ঝড়ো গতিতে। শেষ পর্যন্ত এই জুটিটি ভাঙেন কেদর যাদব। তাকে তুলে মারতে গিয়ে পয়েন্টে ধরা পড়েন মিরাজ। ৫৯ বলে ৩ বাউন্ডারিতে তিনি করেন ৩২ রান।

এরপর আরও একটি উইকেট হারিয়ে ফেলে বাংলাদেশ। ইয়ুজবেন্দ্র চাহালের বলটি ইমরুল কায়েসের প্যাডে লাগলে আঙুল তুলে দেন আম্পায়ার। ইমরুল রিভিউ নিয়েছিলেন, বলও দেখা যায় বাইরে পিচ করে স্ট্যাম্পে আঘাত হেনেছে। কিন্তু আম্পায়ারের কল হওয়ায় ২ রান নিয়েই সাজঘরে ফিরতে হয় ইমরুলকে।

দলের ব্যাটিং ভরসা মুশফিকুর রহীমও বেশিদূর এগুতে পারেননি। ৫ রান করে তিনি উঠিয়ে মারতে গিয়েছিলেন যাদবকে। ডিপ মিডউইকেটে ধরা পড়েন বুমরাহর হাতে। এরপর দুর্ভাগ্যজনক রানআউটের শিকার মোহাম্মদ মিঠুন (২)।

ব্যাটিংয়ে নেমে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ : ১৮৮/৬ (৪১ ওভার) সৌম্য ১৮ ও মাশরাফি ০ রান করে ব্যাট করছেন। মিরাজ ৩১, মাহমুদউল্লাহ৪, মিঠুন ১, মুশফিক ৫ ও ইমরুল ২ রান করে আউট হয়েছেন। লিটন ১২১ রান করে বাজে আম্পারের ভূল সিদ্ধান্তের ফাদে পড়ে আউট হয়েছেন। ক্রিকেটের নিয়মে ৫০-৫০ থাকলে সেখানে ব্যাটসম্যানের দিকে বেনিফিট যায়। কিন্তু না এখানে বিপক্ষ দল ভারত বলেই বাংলাদেশের সাথে প্রতিবার এমন হয়।

বাংলাদেশ একাদশ- লিটন দাস, ইমরুল কায়েস, সৌম্য সরকার, মুশফিকুর রহিম, মিথুন আলী, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, নাজমুল ইসলাম অপু, মাশরাফি বিন মর্তুজা, মেহেদি মিরাজ, রুবেল হোসেন, মোস্তাফিজুর রহমান।

ভারত একাদশ- রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, আম্বতী রায়ডু, এমএস ধোনি, দিনেশ কার্তিক, কেদার যাদব, রবীন্দ্র জাদেজা, ভুবনেশ্বর কুমার, কুলদীপ যাদব, জসপ্রিত বুমরাহ, ইউজভেন্দ্র চাহাল।

Facebook Comments