ফুটপাথে খাবার বিক্রেতা সেই মুসলিম নারী আজ সিঙ্গাপুরে রাষ্টপতি

নাম: হালিমা ইয়াকুব
রাষ্ট্রপতি: সিঙ্গাপুর
ফুটপাথ থেকে রাজপথ!

*সংক্ষিপ্ত পরিচিতি*
সিঙ্গাপুরের বর্তমান মুসলিম নারী প্রেসিডেন্ট হালিমা ইয়াকুবের পিতা জনাব মো: ইয়াকুব যখন মারা যান তখন হালিমার বয়স আট বছর।

সংসারের হাল ধরেন হালিমার মা। ফুটপাথে খাবারের দোকান খুলে বসেন। পাঁচ ভাই-বোনের সংসারে হালিমা লেখা-পড়ার পাশাপাশি মায়ের খাবারের দোকানে কাজ করতেন নিয়োমিত।

স্কুল জীবন শেষ করে হালিমা আইন শিক্ষা লাভ করতে ভার্সিটিতে ভর্তি হন। আইন শিক্ষায় উচ্চতর ডিগ্রী লাভ করে তিনি আইন পেশায় নিয়োজিত হন।

২০০১ সালে সিঙ্গাপুরের রাজনীতিতে অভিষেক ঘটে হালিমার। এরপর আর পেছনে তাকাতে হয়নি তাকে। অবশষে ২০১৭ সালে নির্বাচিত হন সিঙ্গাপুরের রাষ্ট্রপতি।

ফুটপাথ থেকে রাজপথের উচ্চশিখরে আরোহন করতে হালিমাকে পারি দিতে হয়েছে দীর্ঘপথ। নিজের জীবনের ওপর অতিষ্ঠ হয়ে একাধিকবার বেছে নেয় আত্মহত্যার পথ। কিন্তু পরকালে বিশ্বাসি মুসলিম মেয়ে হালিমা মরনঘর থেকে ফিরে আসে প্রতিবার। আবার শুরু করেন নতুনভাবে পথচলা।

বর্তমান বিশ্বের হতাশাগ্রস্ত কোটি কোটি যুবক-যুবতীদের অনুকরনীয় মডেল সিঙ্গাপুরের মুসলিম নারী প্রেসিডেন্ট হালিমা ইয়াকুব।

বাংলার মুসলমানদের পক্ষ থেকে তোমাকে জানাই আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা।
মহান রবের দরবারে তোমার ইহকাল ও পরকালীন সফলতা কামনা করছি।

অারো পড়ুন-যুক্তরাষ্ট্র- ইসরাইলকে জেরুসালেম ছাড়তে বাধ্য হবে : তুরস্ক

তুরস্কের ডেপুটি প্রধানমন্ত্রী ও সরকারের মুখপাত্র বেকির বজদাগ বলেছেন- জেরুসালেম ফিলিস্তিনিদের সম্পত্তি, তাই যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরাইল অবশ্যই ফিলিস্তিন ছাড়তে হবে বলে মন্তব্য করেছে তুরস্ক।

সোমবার জেরুসালেমে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের কার্যক্রম শুরুর পর তিনি বলেন, জেরুসালেম অবশ্যই পূর্ণ স্বাধীনতা পাবে। এক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্র বা ইসরাইল যেসব পদক্ষেপ নিচ্ছে তা একেবারে কিছুই না। বরং গাজায় গণহত্যার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের উসকানিই দায়ী।

এদিকে সোমবার সকাল থেকে ফিলিস্তিনিরা গাজায় বিক্ষোভ করতে থাকলে ইসরাইলি সেনাবাহিনী নির্বিচারে তাদের ওপর গুলি চালায়। এতে এ পর্যন্ত ৫২ ফিলিস্তিনি নিহত ও প্রায় ২০০০ জন আহত হয়েছে।

সোমবার জেরুসালেমে মার্কিন দূতাবাস উদ্বোধনকে কেন্দ্র করে গাজায় বিক্ষোভে অন্তত ৫২ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। ফিলিস্তিনি জনগণের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করে তিন দিনের শোক পালনের ঘোষণা দিয়েছে তুরস্ক। এদিকে, ইসরাইল ও যুক্তরাষ্ট্রে তুর্কি রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে দেশটি।

তুরস্কের উপপ্রধানমন্ত্রী বেকির বোজডাগ জানিয়েছিলেন, বর্তমানে তাদের ওয়াশিংটন ডিসি ও তেলআবিবে অবস্থানরত রাষ্ট্রদূতদের তলব করা হয়েছে। পরবর্তী করণীয় নির্ধারণে পরামর্শের জন্য তাদের ডেকে পাঠানো হয়েছে।

তিনি বলেন, ফিলিস্তিনে গণহত্যার তীব্র নিন্দা জানাই আমরা। ফিলিস্তিনি জনগণের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করে তিন দিনের শোক পালনের ঘোষণা দিয়েছে তুর্কি সরকার। ইসলামিক সহযোগিতা সংস্থার (ওআইসি) জরুরি বৈঠকের আহবান করেছে আঙ্কারা। যেটি শুক্রবার হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

তুরস্কের উপ-প্রধানমন্ত্রী বেকির বোজদাগও সোমবারের হত্যাকাণ্ডকে ‘হত্যাযজ্ঞ’ বলে বর্ণনা করেছেন। তিনি বলেন, এ ঘটনায় ইসরাইলের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রকেও দায় নিতে হবে।

মার্কিন প্রশাসনের জেরুজালেমে দূতাবাস স্থানান্তর শান্তির সুযোগ ধ্বংস করে দিয়েছে। এটা এমন এক আগুন জ্বালিয়ে দিয়েছে যাতে আরও মানুষ মারা যাবে ও আহত হবে। একই সঙ্গে অঞ্চলটিতে ধ্বংস ও বিপর্যয় ডেকে আনবে।

অারো পড়ুন-অপ্রয়োজনীয় ও বিলাসবহুল সরকারি গাড়ি নিলামে তুলেছেন -ইমরান খান

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শতাধিক বিলাসবহুল গাড়ি বিক্রির জন্য নিলামে তুলেছে দেশটির তেহরিকই-ই ইনসাফ পার্টির সরকার। এসব গাড়ির মধ্যে রয়েছে পাঁচটি বুলেট প্রুফ কারসহ বিএমডব্লিউ, মার্সিডিজ বেঞ্জের মতো দামী ব্রান্ডের গাড়ি। ইমরান খান সরকারের কঠোরতা নীতির অংশ হিসেবে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

বিলাসবহুল ও অপ্রয়োজনীয় গাড়িগুলোই শুধু বিক্রি করা হচ্ছে এই নিলামে। নিলামে তোলা গাড়ির সংখ্যা মোট ১০২টি। পিটিআই দলের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে জানানো হয়েছে,

নিলামে তোলা গাড়িগুলোর মধ্যে রয়েছে ২০০৫ মডেলের ৫ হাজার সিসি মার্সিডিজ বেঞ্জ, যেটি বিক্রি হয়েছে এক কোটি ৪৫ লাখ পাকিস্তানি রুপিতে। এছাড়া ভি৮ মডেলের একটি ল্যান্ডক্রুজার বিক্রি হয়েছে দুই কোটি ৭৪ লাখ রুপিতে।

পিটিআইয়ের টুইটারে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর কঠোরতা নীতির অধীনে বিক্রিত গাড়ির এই অর্থ পাকিস্তানের জনগনের কল্যাণে ব্যয় হবে। এই প্রচেষ্টা পাকিস্তানের নেতৃত্বের প্রচলিত ধারণায় বিপ্লব আনবে।

জানা গেছে, বিক্রির জন্য নিলামে তোলা গাড়িগুলোর মধ্যে রয়েছে ৮টি বিএমডব্লিউ যার মধ্যে তিনটি ২০১৪ মডেল, তিনটি ৫ হাজার সিসি ও দুইটি ৩ হাজার সিসি এসইউভি ২০১৬ মডেল। এছাড়া আরো চারটি মার্সিডিজ বেঞ্জ রয়েছে তালিকায়, যার মধ্যে ২টি ৪ হাজার সিসি বুলেট প্রুফ গাড়ি।

এছাড়া আছে ১৮টি টয়োটা গাড়ি যার মধ্যে একটি ২০০৪ লেক্সাস, একটি ২০০৬ লেক্সাস এসইউভি এবং দুটি ২০০৪ ল্যান্ড ক্রুজার। এর বাইরে আরো আছে চারটি বুলেট প্রুফ ল্যান্ড ক্রুজার। এছাড়া হোন্ডা ও সুজুকি মডেলের গাড়ি রয়েছে ৪টি। একটি হিনো ব্রান্ডের বাস।

নিলামে তোলা গাড়িগুলোর মধ্যে ৬১টি বিক্রি হয়েছে। এছাড়া ২১ গাড়ির নিলাম বাতিল করেছে সরকার।

আরো পড়ুন: ২৮ লাখ বাঙালিকে নাগরিকত্ব দেবে পাকিস্তান
পাকিস্তানে জন্ম নেয়া বাঙালি ও আফগান শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। রোববার করাচির গভর্নর হাউজে বাঁধের জন্য তহবিল সংগ্রহের এক অনুষ্ঠানে ইমরান খান এ ঘোষণা দেন।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাঙালি ও আফগান শরণার্থীদের সন্তান এবং অভিবাসী শ্রমিকরা পাকিস্তানের পাসপোর্ট পাবেন। তিনি বলেন, শিক্ষা ও চাকরির সুযোগ না থাকায় করাচির নিম্ন শ্রেণির মানুষজন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ছে।

ইমরান বলেন, এই অন্যায় বন্ধ হওয়া দরকার। বঞ্চিত শ্রেণির মানুষজন অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে, এটার ‍দ্রুত সমাধান হওয়া দরকার।

করাচির উন্নয়ন ও সমাজের সব শ্রেণির মানুষকে সম্পৃক্ত করার লক্ষ্যে তার সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের কথাও তুলে ধরেন ইমরান খান। তিনি বলেন, দরিদ্র এবং সুবিধাবঞ্চিতদের উন্নয়নে আমাদের কাজ করতে হবে। আমাদের সামনে চীনের অনুকরণীয় মডেল আছে, যেখানে সাত কোটি মানুষ দারিদ্র্য থেকে বেরিয়ে এসেছে।

ইমরান বলেন, বিচারহীনতার কারণে শহর এলাকায় অপরাধ হচ্ছে। তিনি বলেন, আবর্জনা ব্যবস্থাপনা শহরের জন্য একটি বড় বিষয়।

এই সমস্যা সমাধানের জন্য সিন্ধু প্রশাসনকে দুই মাসের সময়ও বেঁধে দিয়েছেন ইমরান খান।

পাকিস্তানে প্রায় ২৮ লাখ বাঙালি বসবাস করেন। এদের মধ্যে ১৫ লাখই আবার করাচিতে বসবাস করেন। তবে এই বিপুল সংখ্যক বাঙালিকে এখনও নাগরিকত্ব দেয়নি পাকিস্তান। এর আগেও বিভিন্ন সময়ে তাদের নাগরিকত্ব দেয়ার উদ্যোগ নেয়া হয়েছিল। তবে তা বাস্তবায়ন করা হয়নি।

Facebook Comments