আমেরিকার শর্তারোপ করার কোন অধিকার নাই – নাঈম কাসেম !

সিরিয়ায় পরাজিত আমেরিকা ইরানের সামরিক উপদেষ্টা ও হিজবুল্লাহকে শর্তারোপ করার কে বলে প্রশ্ন করেছেন হিজবুল্লাহর উপ-মহাসচিব শেইখ নাঈম কাসেম।

হিজবুল্লাহর উপ-মহাসচিব বলেন, মার্কিন শর্তের কোনো মূল্য নেই। কারণ সিরিয়ায় আমেরিকা পরাজিত হয়েছে। সন্ত্রাসীদের পক্ষ নিয়ে পরাজিত হওয়ার পর এখন শর্তারোপের অধিকার তাদের নেই।

মার্কিন মদদপুষ্ট তাকফিরি সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে বিজয়ে সিরিয়ার সেনাবাহিনীকে শুভেচ্ছা জানান হিজবুল্লাহর এই নেতা।

তিনি বলেন, প্রতিরোধ শক্তির বিজয় অব্যাহত থাকবে।

সৌদি আরবের নীতি-অবস্থান প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সৌদি আরব আমেরিকাকে মিত্র ভাবছে। কিন্তু অদূর ভবিষ্যতেই সৌদি আরব সবচেয়ে বড় আঘাতের শিকার হবে আমেরিকার পক্ষ থেকে।

সম্প্রতি মার্কিন নিরাপত্তা ও গোয়েন্দা বিভাগের একটি প্রতিনিধিদল সিরিয়ায় প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের বিশেষ নিরাপত্তা উপদেষ্টা আলী মামলুকের সঙ্গে বৈঠক করেছেন।এ খবর জানিয়েছে লেবাননের দৈনিক আল-আখবার ।

চার ঘণ্টার বৈঠকে তারা বলেছে, তিনটি শর্ত মানা হলেই কেবল আমেরিকা সিরিয়া থেকে সেনা প্রত্যাহার করবে। এর একটি শর্ত হচ্ছে, সিরিয়ার দক্ষিণাঞ্চল থেকে ইরানি সামরিক উপদেষ্টাদের প্রত্যাহার করতে হবে। এই অঞ্চলটি ইসরাইলের দখলীকৃত গোলান মালভূমির কাছে অবস্থিত।

‘শত্রুরা ইরানকে ঠেকাতে পারবে না’

শত্রুদের পক্ষে ইরানের উন্নয়ন ঠেকিয়ে রাখতে রাখা সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি।

মঙ্গলবার ইরানের দক্ষিণাঞ্চলীয় আসালুইয়ে শহরে কয়েকটি পেট্রোকেমিক্যাল প্রকল্প উদ্বোধন কালে তিনি এসব কথা বলেন।

রুহানি বলেন, ইরানের শিল্প খাতের পরিশ্রমী কর্মীদের নিরলস প্রচেষ্টার ফল হিসেবে আজ তিনটি বিশাল পেট্রোকেমিক্যাল প্রকল্প উদ্বোধন করা সম্ভব হয়েছে। এসব প্রকল্প প্রমাণ করে ইরান চলমান সমস্যা কাটিয়ে উঠে উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখবে।

তিনি বলেন, ইরানি জনগণের ওপর সমস্যা জোর করে চাপিয়ে দেয়া সম্ভব হলেও তাদের ওপর নিয়ন্ত্রণ আরোপ করা সম্ভব নয়।

হাসান রুহানি বলেন, ইসলামি বিপ্লবের আগের মতো ইরানি জনগণের সঙ্গে যা খুশি তাই আচরণ করার আকাঙ্ক্ষা যদি আমেরিকার মনে থেকে থাকে তাহলে তা কোনোদিনও বাস্তবায়িত হবে না।

শত্রু সাময়িকভাবে কিছুদিনের জন্য এই অগ্রযাত্রার গতি কমিয়ে দিতে পারলেও দীর্ঘমেয়াদে ইরানি জাতিকে দমিয়ে রাখতে পারবে না বলে তিনি উল্লেখ করেন।

Facebook Comments