তিন ২২’শে সফলতা ইমরান খানের!

একসময় ছিলেন ২২ গজ ক্রিকেটের ক্যাপ্টেন। দুর্দান্ত পারফর্মেন্সে তখন ২২ গজ শাসন করেছেন তিনি। ২২ গজের বাইরে থাকা হাজার হাজার উপস্থিতি আর টিভি-রেডিওর লাখ লাখ দর্শক-শ্রোতার ভালোবাসায় সিক্ত ছিলেন পাকিস্তানের ক্রিকেট সুপারস্টার ইমরান খান।

১৯৯৬ সালে ক্রিকেট ছাড়ার মাত্র ৪ বছর আগে ১৯৯২ সালে বিশ্বকাপ জিতেছিলেন ইমরান খান। ক্রিকেটের ওই আসরটিও শুরু হয়েছিল ২২ ফেব্রুয়ারি।

(১৯৯২ সালে বিশ্বকাপ জিতে কাপ হাতে ইমরান খান)
১৯৯৬ সালে ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়ে সে বছরই রাজনীতিতে পা রাখেন ইমরান খান। পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ পার্টি (পিটিআই) গঠন করে রাজনৈতিক ক্যারিয়ার শুরু করেন।

(১৯৯৬ সালে রাজনৈতিক দল গঠনের পর ইমরান খান)
রাজনীতিতে উত্থান পতনের দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়েছেন ২২ বছর। এই সময়ের মধ্যে তিনি বিরোধী দলের মর্যাদা পেয়েছেন আবার কারাবরণও করেছেন।

২০১৭ সালে ইমরান খানকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হয়। তিনি কারাগারে অনশন শুরু করেন। এতে অসুস্থ হয়ে পড়লে তার জামিন দেয়া হয়।

(কারাগার থেকে বেরিয়ে গণমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দেন ইমরান খান)
কারাগার থেকে বেরিয়ে আবারো রাজনীতিতে সক্রিয় হন পিটিআই চেয়ারম্যান। সর্বশেষ গত জুলাই মাসের শেষ সপ্তাহে পাকিস্তানে অনুষ্ঠিত জাতীয় নির্বাচনে ক্ষমতায় আসে তার দল।

শনিবার পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন সাবেক এ ক্রিকেট তারকা। তাকে শপথবাক্য পাঠ করান প্রেসিডেন্ট মামনুন হুসাইন।

(শপথ পাঠ করছেন ইমরান খান)
শুক্রবার পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদের ১৭৬ সদস্যের ভোট পেয়ে দেশের ২২তম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত হন তিনি।

(ভোট দিচ্ছেন ইমরান খান)
রাজধানী ইসলামাবাদে আইওয়ান-ই-সদরে (প্রেসিডেন্ট ভবন) শনিবার সকাল ১০টার দিকে শপথ অনুষ্ঠান শুরু হয়।

জাতীয় সংগীত এবং কোরআন তেলওয়াতের মধ্য দিয়ে শপথ শুরু হয়। শপথ নেয়ার পর প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ইমরান খান এবং তার স্ত্রী বুশরা ইমরানকে উপস্থিত অতিথিরা অভিবাদন জানান। তাদের বিয়ের পর এই প্রথম দু’জন একসঙ্গে প্রকাশ্যে এলেন।

ইমরানের শপথ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধানমন্ত্রী নাসিরুল মুলক, জাতীয় পরিষদের স্পিকার আসাদ কায়সার, সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া, বিমান বাহিনীর প্রধান মার্শাল মুজাহিদ আনওয়ার খান এবং নৌবাহিনীর প্রধান জাফর মাহমুদ আব্বাসি।

(ইমরান খানের শপথ অনুষ্ঠানে স্ত্রী বুশরা)
এছাড়া পিটিআইয়ের নেতাকর্মীরা, পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার এবং ধারাভাষ্যকার রমিজ রেজা, পাঞ্জাব পরিষদের নতুন নির্বাচিত স্পিকার চৌধুরী পারভেজ এলাহি, গায়ক সালমান আহমেদ, আবরারুল হক, অভিনেতা জাভেইদ শেইখ এবং জাতীয় পরিষদের সাবেক স্পিকার ড. ফেহমিদা মির্জাও শপথ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

(ইমরান খানের শপথ অনুষ্ঠানে অতিথিরা)
অতিথিদের তাদের সঙ্গে এনআইসি কার্ড বা স্বীকৃতিপত্র বহনের জন্য বলা হয়। তবে কোনো ধরনের হ্যান্ডব্যাগ, পার্স, মোবাইল এবং ইলেক্ট্রিক জিনিসপত্র বহন না করার পরামর্শ দেয়া হয়েছিল।

প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে ইমরানের প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন শেহবাজ শরিফ। তাকে বড় ব্যবধানে পরাজিত করেছেন ইমরান। শেহবাজ শরীফ ৯৬টি ভোট পেয়েছেন। নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা আনুষ্ঠানিকভাবে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনে ভোট দেন।

জাতীয় পরিষদে ভোটাভুটি শুরুর আগে ইমরান ও শাহবাজ শরিফ করমর্দন করেন। ভোটাভুটির প্রক্রিয়া শুরুর ঘোষণা দেন জাতীয় পরিষদের নতুন স্পিকার আসাদ কায়সার।

দেশে পরিবর্তনের ডাক দিয়ে নির্বাচনে অংশ নেন ইমরান খান। দেশে জীবনযাত্রার মান পরিবর্তন এবং দুর্নীতি দমনের ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। এক বিবৃতিতে ইমরান খান বলেন, যারা দেশকে লুটপাট করছে আমি প্রতিজ্ঞা করছি তাদের শাস্তির আওতায় আনা হবে।

শপথ অনুষ্ঠানে নিজের সমসাময়িক ভারতের তিন ক্রিকেটার নভজাত সিং সিধু, সুনীল গাভাস্কার এবং কপিল দেবকে আমন্ত্রণ জানান ইমরান খান। তবে শুধুমাত্র নভজাত সিং সিধুই ওই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পাকিস্তানে এসেছেন।

গত মাসে ইমরান খানকে ফোন করে স্বাগত জানান ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সে সময় দু’দেশের মধ্যে শান্তি এবং উন্নয়ন নিয়ে আলোচনা করেন তারা।

এর আগে ভোটে জিতে ভারতের প্রতি বন্ধুত্বপূর্ণ আহ্বান জানান ইমরান। তিনি বলেন, আপনারা এক কদম এগিয়ে এলে আমরা দুই কদম এগিয়ে যাব।

শপথ নিয়েই যা করলেন ইমরান খান

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েই কালো টাকার সন্ধানে বিশেষ তদন্তকারী দল গঠন করলেন ইমরান খান।

শুক্রবার পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদের নিম্নকক্ষে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার পরই কালো টাকা নিয়ে হুঙ্কার ছাড়েন ইমরান।

শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার পর পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদে দেয়া প্রথম ভাষণে ইমরান বলেন, ‘যে বদলের আশায় পাকিস্তানের মানুষ এতদিন অপেক্ষা করছিলেন আমি তাই করব। আমাদের প্রত্যেককে কড়া দায়বদ্ধ থাকতে হবে।

আমি কথা দিচ্ছি, পাকিস্তানের সমস্ত কালো টাকা ফেরত আনব। যারা একাজ করেছে তাদেরও ছাড়ব না।’

তিনি বলেন, দেশকে যারা লুটছে, তাদের ছাড়ব না। শনিবার সকালে ইসলামাবাদে দেশের ২২তম প্রধানমন্ত্রী হিসাবে শপথ নেন ইমরান। দুর্নীতির মামলায় বর্তমানে কারাবন্দি রয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ ও তার মেয়ে মরিয়ম নওয়াজ।

পাকিস্তানের কালো টাকা উদ্ধারে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে’কে সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন সাবেক এই ক্রিকেট তারকা।

লন্ডনে বিলাসবহুল ফ্ল্যাট ক্রয় ও কর ফাঁকি দিয়ে দুর্নীতির মাধ্যমে অর্থ-পাচার এবং বিদেশে কোম্পানি খোলার দায়ে অভিযুক্ত নওয়াজকে গত বছর দেশটির আদালত প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে বরখাস্ত করেন।

২০১৫ সালে পানামা পেপার্স কেলেঙ্কারিতে নওয়াজের নাম আসার পর দেশটির আদালত তদন্ত শুরু করে। এই তদন্তে অবৈধ সম্পত্তির খোঁজ পাওয়ার পর দেশটির দুর্নীতিবিরোধী আদালত সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীকে ১০ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেয়।

পরে ১৩ জুলাই লন্ডন থেকে ফেরার পর নওয়াজ ও তার মেয়ে মরিয়ম নওয়াজকে গ্রেফতার করে দেশটির দুর্নীতিবিরোধী সংস্থা ন্যাশনাল অ্যাকাউন্ট্যাবিলিটি ব্যুরো (ন্যাব)।

অন্যদিকে, দুর্নীতি ও কেলেঙ্কারিতে জড়িত ক্ষমতাসীনদের বিরুদ্ধে সোচ্চার ইমরান খান ১৯৯৬ সালে তার রাজনৈতিক দল পিটিআই গঠন করেন। ২০১৩ সাল থেকে দেশটির জাতীয় পরিষদের নির্বাচিত সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন তিনি।

বিভিন্ন সামাজিক অনাচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে দেশটিতে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পান সাবেক এই ক্রিকেট তারকা।

Facebook Comments